কাতালুনিয়া প্রশ্নে পিকের সাথে মেসির বিরোধ!

Print Friendly, PDF & Email

লা লিগায় লিওনেল মেসির ১৩ বছর উপলক্ষ্যে কতো কিছুই না হলো। তার ক্লাব বার্সেলোনা মেসির বেড়ে ওঠা থেকে শুরু করে এই পর্যন্ত যা কিছু অর্জন তার সারমর্ম দাঁড় করিয়ে একটি ডকুমেন্টারি করেছে। যা মন কাড়ার মতো। বার্সার প্রাণ মেসি দলের নেতা। থিঙ্ক ট্যাঙ্ক। কিন্তু এমন সময়েই নাকি কাতালুনিয়ার স্বাধীনতা প্রশ্নে সতীর্থ খেলোয়াড়ের সাথে ঝামেলায় জড়িয়ে পড়েছেন এই আর্জেন্টাইন!
মেসি দলটাকে চালাচ্ছেন ভালো মতোই। তার কথাতেই এখন প্রায় সবই চলে। কিন্তু ঝামেলা বেধেছে অন্য জায়গায়। কাতালান বার্সা কাতালুনিয়া হিসেবে স্বাধীন হওয়ার ইচ্ছেটা পুরোপুরি প্রকাশ করতে পারে না। আবার কাতালুনিয়া স্পেন থেকে আলাদা হয়ে নিজের দেশ চায়। এ নিয়ে স্প্যানিশ খেলোয়াড়দের মধ্যেও চাওয়া-পাওয়া আছে। বিরোধটা ওখানেই। মাঠে এই কাতালুনিয়া প্রসঙ্গের কোনো বিতর্ক উঠে আসতে দেখতে নারাজ মেসি।
স্প্যানিশ টক শো এল চিরিগুইতা জানিয়েছে, মেসি এর প্রভাব মাঠে পড়ুক তা চান না। সেন্টার ব্যাক পিকে কদিন আগে বলে দিয়েছেন, প্রয়োজনে স্পেন জাতীয় দলেই খেলবেন না। তিনি কাতালুনিয়াকে স্বাধীন দেশ, নিজের দেশ হিসেবে চান। এমনকি স্পেন সরকারের অবৈধ ঘোষিত কাতালুনিয়ার স্বাধীনতা প্রশ্নে ভোটাভুটিতে ভোট দিয়ে এসেছেন পিকে। স্প্যানিশ সমর্থকরা ছেড়ে কথা বলেননি পিকেকে। কিন্তু পিকে আছেন পিকের মতোই। ‘আমি কাতালান, মনে প্রাণে কাতালান। কাতালান হিসেবে এখন আরো বেশি গর্ব অনুভব করি।’ পিকের কথা বিতর্ক ছড়ায়।
কিন্তু বার্সেলোনা বিশ্বাস করে খেলোয়াড়ের চেয়ে ক্লাব অনেক বড়। মেসিও তাই। খবর জানা যাচ্ছে মেসি নাকি পিকেকে বলেছেন ঠাণ্ডা থাকতে। এইসব রাজনৈতিক বিষয়ের মধ্যে নিজেকে না জড়াতে। মন দিতে বলেছেন বার্সেলোনার হয়ে শিরোপা জেতার দিকে।