আবারও ডিএসইতে পতনে লেনদেন

Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন আজ মঙ্গলবার আবারও পতনে শেষ হয়েছে। টানা পাঁচ দিন ডিএসইর লেনদেনে ইতিবাচক ধারা বজায় থাকার পর এদিন সূচকের পতন হয়। তবে গতকালের তুলনায় লেনদেন বেড়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এর আগে গত ৮ ফেব্রুয়ারি ডিএসইতে পতনে লেনদেন হয়। এরপর টানা ৫ দিন ঘুরে দাঁড়ায় বাজার। আর পাঁচ দিন পরই আজ আবারও পতন।

দেশের প্রধান এ বাজারে আজ লেনদেন হয়েছে ৪৬০ কোটি ৮১ লাখ টাকা। এদিন ৪৭ দশমিক ৬৮ শতাংশ কোম্পানির শেয়ার দর বেড়েছে। এছাড়া অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) আজ লেনদেন হয়েছে পতনে। এদিন এ স্টক এক্সচেঞ্জে ২৭ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। তবে এইদিন এই স্টক এক্সচেঞ্জের লেনদেন আগের দিনের সমানই ছিল।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার ডিএসইতে আগের দিনের তুলনায় ১৫ কোটি টাকা বেশি লেনদেন হয়েছে। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৪৪৫ কোটি ৭৪ লাখ টাকার শেয়ার।

আজ ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩২৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৫৪টির, কমেছে ১১৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৪টির শেয়ার দর।

ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্য সূচক ৬ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৫৭৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ১১৮ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৭৫২ পয়েন্টে।

টাকার পরিমাণে ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হচ্ছে- বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেড, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, আমান ফিড, বেক্সিমকো ফার্মা, এএফসি অ্যাগ্রো বায়োটেক লিমিটেড, স্কয়ার ফার্মা, প্রিমিয়ার সিমেন্ট মিলস লিমিটেড, ইফাদ অটোস লিমিটেড, সামিট অ্যালায়েন্স পোর্ট লিমিটেড এবং অ্যাক্টিভ ফাইন কেমিক্যালস লিমিটেড।

মঙ্গলবার সিএসই সার্বিক সূচক ২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ১৩৫ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৫৭টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২২টির, কমেছে ৮৫টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫০টির।